হযরত আলী (আ.)-এর বাণী- নাহজুল বালাগা থেকে

একদিন হযরত আলী (আ.) এক আস্তাকুঁড়ের পাশ দিয়ে পথ অতিক্রম করার সময় বলেন : ‘এ হচ্ছে সে জিনিস যা নিয়ে কৃপণগণ কার্পণ্য করত।’

আর অন্য একটি বর্ণনা মতে তিনি বলেন : ‘এ হচ্ছে জিনিস যার ভালোবাসা ও লিপ্সায় গতকাল পর্যন্ত তোমরা প্রতিযোগিতায় লিপ্ত ছিলে।’- নাহজুল বালাগা, উক্তি নং ১৮৬

হযরত আলী (আ.) বলেছেন : ‘যে সম্পদ তোমার জন্য উপদেশ রেখে গিয়েছে, তা বিনষ্ট হয়নি।’- নাহজুল বালাগা, উক্তি নং ১৮৭

হযরত আলী (আ.) বলেছেন : ‘মানুষের দেহ যেমন অবসন্ন বা ক্লান্ত হয়। অতএব, অন্তরের অবসন্নতা দূর করার জন্য জ্ঞানের বিষয়সমূহ অন্বেষণ কর।’- নাহজুল বালাগা, উক্তি নং ১৮৮

হযরত আলী (আ.) বলেন : ‘প্রত্যেক লোকের সাথে দু’জন ফেরেশতা রয়েছেন তাঁরা তাকে হেফাজত করে থাকেন। আর যখন অলঙ্ঘনীয় তাকদীর এসে পড়ে তখন ফেরেশতাগণ তাকে ছেড়ে চলে যান। আর মানুষ তথা কোন প্রাণীর জন্য ‘নির্ধারিত সময়কাল’ হচ্ছে একটি সুরক্ষিত বর্ম।’ (অর্থাৎ মানুষের যখন অন্তিমকাল এসে যায় তখন তার সঙ্গের ফেরেশতাদ্বয় তাকে ছেড়ে চলে যান এবং তাকদীর অনুযায়ী তার জীবনের অবসান ঘটে।)- নাহজুল বালাগা, উক্তি নং ১৯২

হযরত আলী (আ.) লোকদের উদ্দেশ্যে বলেন : ‘হে লোক সকল! আল্লাহকে ভয় কর যিনি শোনেন যখন তোমরা কথা বল আর তোমার কোন কিছু গোপন করলে তিনি তা জানেন। আর মৃত্যুর পূর্বে নেক কাজে অগ্রসর হও। মৃত্যুর নিকট থেকে পলায়ন করলে মৃত্যু তোমাদেরকে ধরে ফেলবে। আর দাঁড়িয়ে থাকলেও মৃত্যু তোমাদের ধরে ফেলবে। তোমরা মৃত্যুকে ভুলে গেলে মৃত্যু তোমাদের স্মরণ করবে।’- নাহজুল বালাগা, উক্তি নং ১৯৪

(নিউজলেটার, ডিসেম্বর ১৯৯১)

Leave a Comment

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.