আলী (রা.) নাকি (আ.)?

আলী (রা.) নাকি (আ.)?

■ “আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত” এর সহীহ হাদীসগ্রন্থ থেকে হাদীসের কিছু নমুনা, যেখানে মাওলা আলীর নামের শেষে (আ.) ব্যবহার করা হয়েছে।

■ বুখারী শরীফ :

(১) বুখারী শরীফে ২০৮৯ নং হাদিসের সনদের মধ্যে ইমাম বুখারী আলীর নামের শেষে (আঃ) ব্যবহার করেছেন। যা নিম্নরূপঃ

أخبره أن عليا عليه السلام،

(২) বুখারী শরীফে তাফসীর অধ্যায়ে সূরা লাইল এর তাফসীরে ৪৯৪৭ নং হাদিসের সনদের মধ্যে ইমাম বুখারী আলীর নামের শেষে (আঃ) ব্যবহার করেছেন, যা নিম্নরূপঃ

عن علی عليه السلام، قال

(৩) বুখারী শরীফে তাফসীর অধ্যায়ে সূরা জারিয়াত এর তাফসীরে ইমাম বুখারী আলীর নামের শেষে (আঃ) ব্যবহার করেছেন, যা নিম্নরূপঃ

قال علي عليه السلام ، ا لذاريات

[এভাবে বুখারীর আরও অনেক যায়গায় রয়েছে]

■ সুনানে আবু দাউদ :

হাদিসের অন্যতম কিতাব সুনানে আবি দাউদ এর মধ্যে অনেক স্হানে ইমাম আবি দাউদ আলীর নামের শেষে (আঃ) ব্যবহার করেছেন। যেমন:

(১) হাদীস নং ১২৭২ :

عن علي عليه السلام

(২) হাদীস নং ২০৭৭ :

فرأينا أنه علي عليه السلام

(৩) হাদীস নং ৩২১৪ :

علي عليه السلام، قال

এভাবে সুনানে আবি দাউদের আরও অনেক যায়গায় আলীর নামের শেষে (আঃ) ব্যবহার করা হয়েছে। কোন কোন হাদিসে আলীর নামের শেষে (আঃ) ব্যবহার করা হয়েছে, হাদিস নং নিম্নে দেওয়া হল।

১৫৭৪,২৯৮৪,৩৫৮২,৩৬৯৭,৩৮২৮,৩৮৫৬,৪৪০২,৪৪০৩,৪৩৫১, ৪৬৩০,৪৬৪৬,৪৬৪৯,৪৫৩০,৪৭৭০,৪৯৬৭,৫০৬৪,৫১৫৬,

■ ইমাম আহমদ বিন হাম্বল :ফাদ্বাইলুস সাহাবা, হাঃ নং–১১৩০,১২২৯,১৩২৩,১৩২৬,১৩৩৪,১৩৬৪,১৩৬৯,১৩৭২,১৩৮৫,১৫৮৪,

■ ইমাম দারে কুতনী: আস সুনান, হাদিস নং –২৫৫,২৯৩,২৫৫৬,২৬২৮,২৬২৯,৩০৪০,৩০৪১,৩১১০,৩৪৩৭,৩৪৫৪,৩৫৪৪,৩৫৭২,৪১২৪,৪২৫৫,৪৬৯০,

■ ইমাম শাফেয়ী : আল মুসনাদ,হাঃ নং- ৭২১,

■ ইমাম আব্দুর রাজ্জাক : আল মুসান্নাফ হাঃ নং– ৯৩৬২

■ ইমাম নাসাঈ : সুনানে কুবরা,হাঃ নং– ১০৯৭৯, ১১১৫৭, ১১৪৪০।

এভাবে আরও অনেক হাদিসে আলীর নামের শেষে (আঃ) ব্যবহার করা হয়েছে।

(সংক্ষেপিত)

■ পাঠকের সুবিধার্থে এই পোস্টের সাথে হাদীসের কিছু নমুনা সংযুক্তি করা হলো :

Leave a Comment

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.